The Work of Creation 2

The Work of Creation 2, an exhibition of works by artist Kazi Ghiyasuddin

Inauguration :
5 PM Friday 28 October 2022
Bengal Shilpalay   Level 1   House 42   Road 27   Dhanmondi   Dhaka 1209
On view until 28 November 4-8 PM except on Tuesdays

Mr. Masud Bin Momen, the Foreign Secretary of the Government of Bangladesh, will inaugurate the exhibition as the Chief Guest H E Mr. Ito Naoki, Ambassador of Japan to Bangladesh, will be present on the occasion as the Special Guest.& Prof. Nisar Hossain, Dean, Faculty of Fine Art, University of Dhaka, will be there as the Guest of Honour.

—————————————————————————————————————————————————————————————————————————————–

Kazi Ghiyasuddin hails from a generation of artists who emerged into the art scene at the cusp of Bangladesh’s independence. By then the Indian sub-continent had been partitioned and later, liberating itself from Pakistan, Bangladesh came into being as an independent nation-state. Despite the legacy of two hundred years of colonial rule and twenty-four years of oppression—artists, litterateurs, intelligentsia of this country remained actively engaged throughout in propagating the significance of institutionalising modern art practice across all spheres.
Alongside cultivating himself further through art-education in Japan, Ghiyasuddin remained in situ, and thus, was able to carve a niche for himself in the local art practice. He established himself amidst the forerunners of foreign artists in Japan’s art milieu. This long journey was, like any other of its kind, not without the looming threats of volatility of chance. Although he served as a faculty in the erstwhile Dhaka Government Art College coupled with a short stint in Japan, he settled for an independent career in art practice. His long absence from his native land did very little to alter his profound love for his homeland which finds expression in the dense yet graceful, nostalgic language of his art. Apparently, elements of nature and those of a studied existential query form the subject-matters woven into his artworks in manners suggestive or rather abstract. He sifts microscopically through both acts of seeing and feeling to create a world that refracts reality in spite of rarely referring to any singular plot or character. Moreover, it offers a leeway to penetrate the artwork with the comfort that one might lend one’s own interpretation at will or choose to withhold it. In other words, it is more of an invitation to contemplate at length an experience in introspection.
The artworks on view in the current exhibition use an array of media; watercolour on paper, oil paints on canvas and board, and collage. Ghiyasuddin claims that the works in watercolour are inspired partly by the traditional Japanese art form of Nihonga. Whereas, the surface of the oils draws on the techniques of Bangladeshi Nakshikantha (embroidered quilt). What especially draws one’s eyes to the artworks are the vibrant colours and dense lines. The collages consist of compositions created by meticulously assembling torn pieces of papers. This manoeuvre brings to light a rhythmic and aesthetic choreography of various layers, lines and forms underlying the surface of the weave. He is composed, steadfast, refined in his approach to art making—which is steeped in the characteristic creativity, thought process and work ethos of the East.
Adopting art as the driving force of life, Ghiyasuddin remained single-minded in his perseverance for over half a century leading him to earn a place of his own in the international art firmament. His body of works stand apart as an exception in contemporary times instilled, as it is, with an abiding appeal that points distinctly to a profound dialogue with nature..
The curated clusters of artworks inside the gallery translate into curious designs which together with the snatches of dialogues they ensue make way for an attempt to bring Ghiyasuddin’s process of art making to view.
We are pleased to present Kazi Ghiyasuddin’s artworks to the audience through a solo exhibition.

– Bengal Foundation

কাজী গিয়াসউদ্দিন বাংলাদেশের স্বাধীনতা-উত্তর সময়ের শিল্পী। তখন ভারত ভাগ হয়ে গেছে এবং পরবর্তীকালে পাকিস্তান থেকে মুক্ত হয়ে অভ্যুদয় ঘটেছে স্বাধীন বাংলাদেশের। দুশো বছরের ঔপনিবেশিক শাসন ও চব্বিশ বছরের শোষণের মধ্যেও এদেশের শিল্পী, সাহিত্যিক, বুদ্ধিজীবীরা প্রাতিষ্ঠানিকভাবে আধুনিক শিল্পচর্চার গুরুত্ব সর্বস্তরে ছড়িয়ে দিতে তৎপর ছিলেন বরাবর।
জাপানে শিল্পশিক্ষায় নিজেকে আরো পরিপক্ব করে তোলার পাশাপাশি দীর্ঘসময় সে-দেশে থিতু হয়ে শিল্পচর্চার ক্ষেত্রে কাজী গিয়াসউদ্দিন নিজের স্থান তৈরি করে নেন। ভিনদেশি প্রমসারির শিল্পী হিসেবে তিনি জাপানে প্রতিষ্ঠা লাভ করেন। এই দীর্ঘ প অন্য সকল পথের মতোই উত্থান-পতনের শঙ্কাবর্জিত ছিল না।
তৎকালীন ঢাকা গভর্নমেন্ট আর্ট কলেজে ও জাপানে স্বল্প সময় শিক্ষকতা করলেও স্বাধীনভাবে শিল্পচর্চাকেই পেশা হিসেবে বেছে নেন তিনি। তবে দীর্ঘ পরবাসেও দেশের প্রতি কাজী গিয়াসউদ্দিনের গভীর ভালোবাসা মুছে যায়নি, যা উঠে আসে তাঁর ছবির গহন, পেলব ও স্মৃতিমেদুর চিত্রভাষায়।
দৃশ্যত কাজী গিয়াসউদ্দিনের ছবির বুননে বিষয়বস্তুগত উপাত্ত অপরোক্ষ, বরং বিমূর্তভাবে আছে প্রকৃতি ও জীবন-নিরীক্ষার এক পরিশীলিত রূপ। অবলোকন ও অনুভূতির আণুবীক্ষণিক মার্জনে বাস্তবের প্রতিসরণ ঘটিয়ে এমন এক জগৎ তৈরি করেছেন তিনি, যেখানে সহসাই কোনো নির্দিষ্ট গল্প বা চরিত্র নেই। বরং শিল্পকর্মের অভ্যন্তরে প্রবেশের স্বাধীনতা রয়েছে, নিজের মতো করে ব্যাখ্যা করা যায় কিংবা যায় না Ñ এই স্বস্তিও রয়েছে। বলা যায়, আত্মমগ্নতার অভিজ্ঞতায় সামগ্রিক অভিযাত্রায় সকলের নিমন্ত্রণ।
বর্তমান প্রদর্শনীর শিল্পকর্মগুলো কাগজে জলরং, তেলরং, বোর্ডে তেলরং ও কোলাজ মাধ্যমে নির্মিত। জলরঙের শিল্পকর্মগুলো সম্পর্কে শিল্পীর ভাষ্য, জাপানের ঐতিহ্যবাহী নিহঙ্গা রীতি তাঁকে কিছুটা অনুপ্রাণিত করেছে। বাংলাদেশের নকশিকাঁথা থেকে পেয়েছেন তেলরঙের চিত্রকর্মের জমিন তৈরির অনুপ্রেরণা। প্রদর্শনীর চিত্রকর্মগুলোয় রঙের উজ্জ্বলতা, রেখার গাঢ়ত্ব বিশেষভাবে লক্ষণীয়। কাগজ ছিঁড়ে ও জোড়া দিয়ে কম্পোজিশনের মাধ্যমে করেছেন কোলাজ। দেখা মেলে একটি বুননতলের আড়ালে আরো তল, রেখা ও আঙ্গিকের নান্দনিক ছন্দ। চিত্রনির্মাণে তিনি স্থির, একাগ্র, মার্জিত Ñ যা প্রাচ্যের সৃজন, মনন ও কর্মের বৈশিষ্ট্য। প্রদর্শনালয়ে গুচ্ছ গুচ্ছ চিত্রকর্মের সম্পাদনায় হয়ে-ওঠা নকশা যেন টুকরো সংলাপের সমন্বয়ে কাজী গিয়াসউদ্দিনের কর্মপ্রক্রিয়ার উপস্থাপন-প্রয়াস।
শিল্পকে জীবনের ধ্যান-জ্ঞান হিসেবে গ্রহণ করে অর্ধশতাব্দীকালের অধিক সময় ধরে একনিষ্ঠ অধ্যবসায় কাজী গিয়াসউদ্দিনকে আন্তর্জাতিক পরিম-লে দিয়েছে অনন্য স্থান। তাঁর চিত্রকর্ম সমসাময়িক সময়ে ব্যতিক্রম, যেখানে রয়েছে একটি চিরন্তন আহ্বান, যা সুনির্দিষ্টভাবে প্রকৃতির সঙ্গে নিবিড় কথোপকথন। আমরা আনন্দিত যে, একক প্রদর্শনীর মাধ্যমে তাঁর শিল্পকর্ম দর্শকদের সামনে তুলে ধরতে পেরেছি।

বেঙ্গল ফাউন্ডেশন
ঢাকা, অক্টোবর ২০২২

 

Terms & Conditions

Entry to the exhibition is free and open for all.
Large bags and backpacks may please be deposited at the counter on the ground floor.
Please wear a mask when entering the exhibition hall and maintain social distance.
Professional cameras are not allowed to be brought in.
Flash photography is strictly prohibited inside the exhibition hall.
No food or drinks are allowed to brought in or consumed inside the exhibition hall.
Visitors are requested to cooperate with security personnel.

To know more about the exhibition please contact +880 1712699947

用於治療陽痿/早洩的藥物,以下列出的藥物(威而鋼犀利士)在某種程度上與本病有關,或用於治療本病。

Enter your keyword